বিষয়বস্তুর দিকে


পুরস্কার সম্পর্কে


ডয়চে ভেলে আয়োজিত ‘দ্য বব্স – বেস্ট অফ অনলাইন অ্যাক্টিভিজম’ প্রতিযোগিতায় ১৪টি ভাষায় বিজয়ী বেছে নেওয়া হয়৷ বাছা হয় এমন সব ব্লগ বা মাইক্রোব্লগ, ফেসবুক পাতা, টুইটার প্রোফাইল কিংবা ডিজিটাল মিডিয়া ব্যবহার করে পরিচালিত সক্রিয় উদ্যোগ, যেগুলি মতপ্রকাশের স্বাধীনতার আঙ্গিকে ইন্টারনেটে মুক্ত আলাপ-আলোচনার ধারক ও বাহক৷ ২০০৪ সালে এই পুরস্কার চালু করা হয়৷ উদ্দেশ্য, ইন্টারনেটের মাধ্যমে মতবিনিময়ের বৈচিত্র্য এবং তাৎপর্যকে তুলে ধরা, সেই ধরনের মতবিনিময়ের শ্রেষ্ঠ নমুনাগুলিকে পেশ করা এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে আলাপচারীর ব্যাপারে বিভিন্ন ভাষার ব্লগারদের মধ্যে একটি সংলাপ সৃষ্টি করা৷

২০১৬-র প্রতিযোগিতা
১৮টি বিভাগে
১৪টি ভাষায় (অর্থাৎ আরবি, বাংলা, চীনা, জার্মান, ইংরেজি, ফরাসি, হিন্দি, ইন্দোনেশীয়, ফার্সি, পর্তুগিজ, রুশ, স্প্যানিশ, তুর্কি এবং ইউক্রেনীয় ভাষায়)

ছবিঘর

দ্য বব্স পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান ২০১৫

যোগাযোগ
ই-মেইল  feedback.bobs@dw.com
ফেসবুক http://www.facebook.com/dw.thebobs
টুইটার @dw_thebobs
হ্যাশট্যাগ #thebobs16

উদ্যোক্তা
ডয়চে ভেলে বা ডিডাব্লিউ জার্মানির আন্তর্জাতিক বেতার সংস্থা৷ প্রতিষ্ঠানটির কাজ হলো, জার্মানিকে ইউরোপের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত একটি জাতি ও সংস্কৃতি হিসেবে, এবং আইনের শাসন ও ব্যক্তিস্বাধীনতার ভিত্তিতে গড়ে ওঠা একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র হিসেবে বহির্বিশ্বের কাছে তুলে ধরা এবং বিভিন্ন জাতি ও সংস্কৃতির মানুষদের মধ্যে সমঝোতা বৃদ্ধি করা৷ ডয়চে ভেলে টেলিভিশন, বেতার এবং ইন্টারনেটে বিভিন্ন ভাষায় অনুষ্ঠান সম্প্রচারের মাধ্যমে এই দায়িত্ব পালন করে চলেছে৷